কোভ্যাক্স পরিকল্পনার অংশ হতে চান জো বাইডেন । Joe Biden wants to be part of the covax plan

কোভ্যাক্স পরিকল্পনার অংশ হতে চান জো বাইডেন
Joe Biden wants to be part of the covax plan

Joe Biden wants to be part of the covax plan
কোভ্যাক্স পরিকল্পনার হতে চান জো বাইডেন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের প্রথম দিন থেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের বিতর্কিত নীতিগুলো কাটাছেঁড়া শুরু করেছেন । প্রেসিডেন্টের চেয়ারে প্রথমবার বসেই বাতিল করেছেন মুসলিমদের উপর নিষেধাজ্ঞা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ফিরিয়েছেন প্যারিস জলবায়ু চুক্তি এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় । এবার দরিদ্র দেশগুলোর জন্য বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাস এর ভ্যাকসিন নিশ্চিতকরণে কোভ্যাক্স পরিকল্পনারও হতে চান জো বাইডেন ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান চিকিৎসা উপদেষ্টা ডাক্তার অ্যান্থনি ফাউসি গত বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে কোভ্যাক্স পরিকল্পনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন । বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাহি বোর্ডকে তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন অতি শীঘ্রই একটি নির্দেশনা জারি করবেন, যার মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কোভ্যাক্সে যোগদানের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত থাকবে । উল্লেখ্য, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, গ্যাভি ও সিইপিআই এর যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত কোভ্যাক্স এর মাধ্যমে সব দেশের জন্য মহামারী করোনাভাইরাস এর ভ্যাকসিন নিশ্চিতের চেষ্টা চলছে । কিন্তু এ পরিকল্পনার অংশ হতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প । শুধু তাই নয়, প্রথমে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় অনুদান বন্ধ এবং পরে সংস্থাটি থেকেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে আনার ঘোষণা দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ।

যুক্তরাষ্ট্রে মহামারী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ রূপ নিতে যাচ্ছে । দায়িত্ব নেওয়ার পরদিন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিজের পরিকল্পনা তুলে ধরার সময় একথা বলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন । হোয়াইট হাউসে জো বাইডেন বলেছেন, পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে চলেছে । আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে সম্ভবত মৃত্যুর সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়ে যাবে । তিনি আরো বলেন, বিগত এক বছরে দেখেছি, জরুরী ভিত্তিতে, মনোযোগ দিয়ে এবং সমন্বয় নিয়ে কাজ করতে ফেডারেল সরকার এর ওপর আমরা নির্ভর করতে পারিনি এবং আমরা এই ব্যর্থতার করুন মূল্য দেখতে পাচ্ছি ।

শপথ নেওয়ার পরদিন বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে অফিস করার সময়ে তিনি এসব কথা বলেন । এ সময় জো বাইডেন পরিস্থিতি মোকাবেলায় এ সংক্রান্ত অনেক নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন তিনি । মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, আমাদের জাতীয় কৌশলটি বিস্তৃত, এটি বিজ্ঞানভিত্তিক, রাজনৈতিক নয় । এটি সত্যের উপর ভিত্তি করে, অসত্যের ওপর নয় এবং এটি বিস্তারিত ।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করার কোন পরিকল্পনা বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেই বলে হোয়াইট হাউজ এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে । গত বুধবার ডোনাল্ড ট্রাম্প জো বাইডেনের উদ্দেশ্যে “অত্যন্ত উদার” একটি চিঠি লিখেছেন বলে উল্লেখ করেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন । এর পরিপ্রেক্ষিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করার পরিকল্পনা বর্তমান প্রেসিডেন্টের আছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি গত বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, ফোন করার কোন পরিকল্পনা আপাতত নেই ।

জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে ডোনাল্ড ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন না, যেটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্টদের জন্য এক বিরল ঘটনা । হোয়াইট হাউজের সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, জো বাইডেন যা বলতে চেয়েছেন তা হল সাবেক প্রেসিডেন্টের অনুমতি ছাড়া তার ব্যক্তিগত চিঠি তিনি প্রকাশ করতে চান না । তবে আমি বলবো না ফোন কলের মাধ্যমে তিনি এই অনুমতি চাইবেন, ব্যক্তিগত যে চিঠি পাঠানো হয়েছে সেটির উপর তিনি শুধু শ্রদ্ধাশীল থাকার চেষ্টা করেছিলেন ।।

আরও পড়ুন : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বইছে স্বস্তির বাতাস । The wind of relief is blowing in the USA

Post a Comment

Please do not enter any spam link in the comment box.

Previous Post Next Post