ডোনাল্ড ট্রাম্প বিদায় নেবেন ২০ জানুয়ারি দুপুরে । Donald Trump will leave at noon on January 20

ডোনাল্ড ট্রাম্প বিদায় নেবেন ২০ জানুয়ারি দুপুরে
Donald Trump will leave at noon on January 20


Donald Trump will leave at noon on January 20
ডোনাল্ড ট্রাম্প বিদায় নেবেন
২০ জানুয়ারি দুপুরে
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিসংশিত অর্থাৎ ইমপিচ হলেও মেয়াদ পূর্ণ করেই ২০ জানুয়ারি দুপুরে বিদায় নেবেন তিনি । তবে ভবিষ্যতে ডোনাল্ড ট্রাম্প যাতে করে পুনরায় আবার প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী অথবা অন্য কোন ফেডারেল প্রশাসনের অংশ হতে না পারেন সে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আমলেই সিনেটে তার বিচার হবে । প্রতিনিধি পরিষদে পাস হওয়া বিলের পরিপ্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে । একই সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রচলিত রীতি অনুযায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প যাতে করে অবসর ভাতা, সিক্রেট সার্ভিস সুবিধা সহ সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে কোনো সুযোগ-সুবিধা না পান সে ব্যবস্থাও গ্রহণ করতে বলা হয়েছে । উল্লেখ্য, ডোনাল্ড ট্রাম্পকে রিপাবলিকান পার্টি থেকেও এই সমস্ত কারণে অপসারিত হতে হবে । সুত্র : অনলাইন নিউজ

দুইবার অভিসংশিত হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নিকৃষ্টতম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প একটি নজির স্থাপন করলেন । গত বুধবার অভিশংনের সিদ্ধান্ত হলো এর আগে বুধবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটল হিলে সহিংস বিদ্রোহে উস্কানি দেওয়ার জন্য । ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন এর এ প্রস্তাবটি পাশ হয় ২৩২ – ১৯৭ ভোটে । এই বিষয়ে ভোটদানে বিরত ছিলেন চারজন । অভিশংসন এর পক্ষে ডেমোক্রেটদের কাতারে শামিল হন সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ডিক চেনির মেয়ে লিজ চেনি সহ আরও ১০ জন রিপাবলিকান নেতা । অভিশংসনের ইতিহাসে এটি উল্লেখ যোগ্য একটি ঘটনা । ডোনাল্ড ট্রাম্পের অসম্মানজনক বিদায়ের পরিক্রমায় বুধবার চিহ্নিত হয়ে থাকবে ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রের পুনঃজাগরণের অবিস্মরনীয় ভূমিকার সঙ্গেও বুধবারের গুরুত্ব অপরিসীম হিসেবে বিবেচিত হবে । বুধবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ক্যাপিটাল জঙ্গি হামলার সাত দিনের মাথায় আরেক বুধবারে ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিশংসন এবং তার সাত দিনের মাথায় বুধবারই ডোনাল্ড ট্রাম্প আমলের অবসান ঘটিয়ে জনগণের রায়ে বিজয়ী জো বাইডেন অভিষিক্ত হবেন । মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোন প্রেসিডেন্ট রাষ্ট্রদ্রোহ, ঘুষ নেওয়া কিংবা অপরাধমূলক কাজে জড়িত হলে তাকে সরানোর পদ্ধতি এ অভিশংসন । প্রতিনিধি পরিষদে পাস হওয়া এ প্রস্তাব যাবে এখন মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে শুনানি । ১০০ সদস্যের সিনেটে এখন ডেমোক্রেট এবং রিপাবলিকান সমান সমান । সেখানে দুই-তৃতীয়াংশ সদস্য সম্মতি দিলে তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প দোষী সাব্যস্ত হবেন । আর সে প্রক্রিয়ায় তাকে সরাতে ২০ জানুয়ারি পার হয়ে যাবে ।

ইতিমধ্যে আভাস দিয়েছেন মার্কিন সিনেটের বর্তমান নেতা মিচ ম্যাককোলেন । মিচ ম্যাককোলেন বলেছেন, সিনেটের অধিবেশন শুরু হবে ১৯ জানুয়ারি এবং পরদিন দুপুরে অভিষিক্ত হবেন নতুন নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস । একইদিন বিকালেই সিনেট লিডারের দায়িত্ব আসবে ডেমোক্রেট চাক শুমারের কাঁধে । এভাবেই ডোনাল্ড ট্রাম্প দায়িত্বে না থাকলেও তার বিরুদ্ধে বিচারকার্য পরিচালিত হবে । সেসময় রিপাবলিকানদের মধ্যে ১৭ জন ভোট দিলেই দুই-তৃতীয়াংশ হয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করা সম্ভব হবে ।।


আরও পড়ুন : আমেরিকা কি গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে? । Is America heading towards civil war?

Post a Comment

Please do not enter any spam link in the comment box.

Previous Post Next Post