Nobel laureate Bengali ( নোবেল বিজয়ী বাঙ্গালি )




নোবেল বিজয়ী বাঙ্গালি
Nobel laureate Bengali



রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর ( Rabindranath Tagore) )

রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর
** জন্ম : ২৫ শে বৈশাখ ১২৬৮ বঙ্গাব্দ ( ৭ই মে ১৮৬১ খ্রিঃ ) কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়িতে । পিতা : মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর, মাতা : সারদা দেবী । জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়ি পরিবারের আসল পদবী “ কুশারী ” । পারিবারিক ভাবে তারা জমিদার ছিলেন ।
** ১৯০১ সালে বোলপুরের শান্তি নিকেতন ‘ব্রহ্মচর্যাশ্রম’ নামক বিদ্যাপীঠ প্রতিষ্ঠা করেন যা ১৯২১ সালে ‘বিশ্বভারতী’ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হয় ।
** ১৯০৫ সালে বঙ্গভঙ্গের প্রতিবাদে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলেন । তিনি হিন্দু-মুসলমানের মিলনের জন্য রাখি উৎসবের পালন করেন ।
** ১৯১৩ সালে অক্টোবর মাসে ‘গীতাঞ্জলি’ কাব্যের জন্য নোবেল পুরুষ্কার পান । তিনি এশিয়া মহাদেশের প্রথম নোবেল বিজয়ী । তিনি সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী প্রথম ভারতীয় ।
** ১৯১৩ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তাকে ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে ।
** ১৯১৫ সালে তৎকালীন ভারত সরকার তাকে ‘স্যার’ বা ‘নাইট’ উপাধি প্রদান করে । ১৯১৯ সালে জালিওয়ানওয়ালাবাগের হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে ‘নাইট’ উপাধি ত্যাগ করেন ।
** ১৯৩০ সালে জার্মানীতে আইনস্টাইনের সাথে সাক্ষাত হয় । সাক্ষাতে তিনি দর্শন, মানুষ ও বিজ্ঞান নিয়ে আলাপচারিতা করে ছিলেন ।
** ১৯৩৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তাকে ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে ।
** ১৯৪০ সালে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় তাকে ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে ।
** মৃত্যু : ২২ শ্রাবন ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ বা ৭ আগষ্ট ১৯৪১ সাল ।
** ২০০৪ সালে ২৪ মার্চ শান্তি নিকেতন থেকে রবিন্দ্রনাথ ঠাকুরের পাওয়া নোবেল পুরস্কার চুরি হয়ে যায় ।



অমর্ত সেন ( Amartya Sen ) )

অমর্ত সেন








অমর্ত সেন ১৯৩৩ সালে ভারতের পশ্চিমবেঙ্গর শাস্তিনিকেতনে জন্মগ্রহন করেন । তার পৈতৃক নিবাস বাংলাদেশের মানিকগঞ্জ জেলায় । তিনি দুর্ভিক্ষ, মানব উন্নয়ন তত্ত্ব, জনকল্যান অর্থনীতি ও গনদারিদ্রের অন্তর্নিহিত কার্যকারন বিষয়ে গবেষনা এবং উদার রাজনৈতিক অবদান রাখার জন্য ১৯৯৮ সালে অর্তনীতিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন । অমর্ত সেন ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক । তিনি বর্তমানে নান্দালা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য । নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তির দিক থেকে তিনি দ্বিতীয় বাঙ্গালী, উপমহাদেশে ষষ্ঠ এবং ২২ তম এশীয় । তিনি অর্থনীতিতে নোবেল জয়ী প্রথম এশিয় । তার বিখ্যাত গ্রন্থ `Poverty and Famine’ , `The Idea of Justice’ , `Identity and Violence’ , The illusion of destiny’ ।





 ড. মুহাম্মদ ইউনুস ( Dr. Muhammad Yunus ) )

ড. মুহাম্মদ ইউনুস


ডক্টর মুহাম্মদ ইউনুস বাংলাদেশী নোবেল বিজয়ী ব্যাংকার ও অর্তনীতিবিদ । তিনি ১৯৪০ সালে চট্রগামের হাটহাজারী উপজেলার বাথুয়া গ্রামে জন্মগ্রহন করেন । তিনি চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিষয়ের শিক্ষক । তিনি ক্ষুদ্রঋণ (Micro credit) এবং ‘সামাজিক ব্যবসা’ ধারনার প্রবর্তক । অধ্যাপক ইউনুস গ্রামীন ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা । মুহাম্মদ ইউনুস ও তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীন ব্যাংক ২০০৬ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ করেন । নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তির দিক থেকে নিতি প্রথম বাংলাদেশি, তৃতীয় বাঙ্গালী, উপমহাদেশের সপ্তম, ১১ তম মুসলিম, ৩৩তম এশীয় । শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের দিক থেকে তিনি দক্ষিন এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় । তিনি  ১৯৭৮ সালে প্রেসিডেন্ট পুরস্কার, ১৯৮৪ সালে ম্যাগসেস পুরস্কার, ১৯৮৬ সালে ইউনেস্কো পুরস্কার এবং ২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক ‘মেডেল অব ফ্রিডম’ লাভ করেন । তার আত্বজীবনীমূলক গ্রন্থ ‘দারিদ্রহীন বিশ্বের অভিমুখে’ এবং ‘Banker of the Poor’ ।

                                                                                                          

No comments

Please do not enter any spam link in the comment box.

Powered by Blogger.